জিন্স প্যান্ট পরে “আমি কলকাতার রসগোল্লা” গানে দুর্দান্ত নেচে ভাইরাল এই বৃদ্ধা, মুহূর্তে ভিডিও ভাইরাল

ব’র্তমান যুগে সো’শ্যাল মিডিয়া এমন একটা মিডিয়া, যেখানে কোনো কিছু ভাইরাল হতে বেশি সময় লাগেনা।

অথাৎ খুব কম সময়ের মধ্যে যেকোনো জি’নিস ভাইরাল হয়ে যায় সো’শ্যাল মি’ডিয়ায়। খুব দ্রু’ত সেই বিষয় পৌঁ’ছে যায় অনেক সংখ্যক মানুষের কাছে।

করোনা প’রিস্থিতির জন্য ল’কডাউন এর কারণে আমরা সো’শ্যাল মি’ডিয়ায় অনেক কি’ছুরই সাক্ষী হয়েছি। ঘ’টনাগুলি খা’রাপ হোক কিংবা ভালো স’মস্তকিছুই দেখতে এবং মানতে হয়েছে আমাদেরকে।

সা’ম্প্রতিককালে সো’শ্যাল মি’ডিয়া এমন একটি প্লা’টফর্ম যেখানে কোন কিছু ভাইরাল হতে খুবই কম সময় লাগে।

কয়েক সে’কেন্ডের মধ্যে হাজার হাজার মানুষের কাছে পৌঁছে যায় এই মি’ডিয়ার দরুন। সো’শ্যাল মি’ডিয়ার মাধ্যমে অনেক মানুষ জ’নপ্রিয় হয়ে উ’ঠেছেন এবং নি’জেদের নাম করতে পেরেছে বি’শ্বের দ’রবারে।

অন্যদিকে অনেক অ’দ্ভুত অ’দ্ভুত ঘট’না দেখা গিয়েছে। যা হয়তো আগে কখনও দেখা যায়নি এমন অনেক ঘ’টনার সা’ক্ষী হয়েছি আমরা এই বছরে।

ল’কডাউন থা’কাকালীন আমরা অনেকে সুপ্ত প্র’তিভাকে উ’জ্জাবিত হতে দেখেছি। অনেকে খুব সু’ন্দর নাচ করতে পারে গান গাইতে পারে,

রান্না করতে পারে তা আমরা জানতে পেরেছি সো’শ্যাল মি’ডিয়ার দরুন। কিন্তু এই দিক থেকে দেখতে গেলে শু’ধুমাত্র যু’বক-যু’বতীরা এগিয়ে নেই, বালক বালিকারা নিজেদের প্র’তিভা উ’দযাপন করেছে।

তারা কোনো দিক থেকেই বড়দের থেকে পিছিয়ে নেই এই কথা বু’ঝিয়ে দিয়েছে তাদের প্র’তিভার মাধ্যমে অন্যদিকে আমরা অনেক মজার মজার ঘ’টনার সা’ক্ষী হয়েছি সো’শ্যাল মি’ডিয়ায়।

ক’রোনার মতো ভ’য়ানক প’রিস্থিতির মধ্যেই আমাদের মুখে হাসি ফু’টিয়েছে আমাদেরকে আনন্দ দিয়েছে। সেরকমভাবে আমারা অনেক প্র’তিভা স’ন্ধান পেয়েছি সো’শ্যাল মি’ডিয়ার মাধ্যমে।

অনেকেই আমরা দেখতে পেয়েছি খুব ভালো রান্না করে সেই রান্নার ফটো সো’শ্যাল মি’ডিয়া শে’য়ার করতে।

অন্যদিকে আবার অনেকে দেখতে ফয়েছি খুব সুন্দর ছবি আঁকে সেই ফ’টো শে’য়ার করতে। আমরা নারী, আমরাই পারি।

এই কথাটি প্র’যোজ্য সকল না’রীদের ক্ষে’ত্রে। পোশাক যে প্র’তিভাকে লুকিয়ে রাখতে পারে না আমরা সকলেই জানি।

সো’শ্যাল মিডিয়া আমাদের জন্য খু’লে দিয়েছে একটি বড় পৃথিবী। এই পৃ’থিবীর হাত ধরে আমরা নিমিষে পৌঁছে যাই লক্ষ লক্ষ কোটি কোটি মানুষের কাছে।

সো’শ্যাল মি’ডিয়ার মাধ্যমে আমরা জা’নতে পারি প্র’তিদিনের ভা’রতবর্ষে অথবা পৃথিবীর প্র’ত্যেকটি স্থা’নের বহু তথ্য।

সেই স’মস্ত ভিডিও দেখে তখনও আমরা হেঁসে উঠি, কখনো আমরা কা’ন্নাকাটি করি, কখনো আমরা হ’তবাক হয়ে যাই।

সো’শ্যাল মিডিয়ার প্ল্যা’টফর্ম কে কাজে লাগিয়ে আ’বালবৃদ্ধবনি’তা তারা নিজেদের প্রতি সকলের সামনে তুলে ধরতে চাইছেন।

সো’শ্যাল মি’ডিয়ার মাধ্যমে আমরা কোন মা’নুষের কাছে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে পারি। যা’ইহোক স’ম্প্রতি সো’শ্যাল-মি’ডিয়ায়-ভাইরাল হয়েছে এমন একটি ভিডিও যা দেখে আ’পনি ভাববেন, জী’বনে কি করলাম।

সবুজ রঙের গে’ঞ্জি এবং নীল র’ঙের ডে’নিম জি’ন্স পড়ে নেচে চলেছেন একজন ঠা’কুরমা। হাতে রয়েছে তার একটি টু’কটুকে লাল ব্যা’গ, এবং অন্য হাতে রয়েছে ফো’ন।

জীবনে সা’য়ান্নে এসে যেভাবে তিনি উ’দ্যমের স’ঙ্গে রেখে চলেছেন, তারে যেন মনে হচ্ছে তিনি এ’কজন যুবতী।

ঠাকু’মাকে নাচতে দেখে যে কোন মানুষ আবার সমস্ত শা’রীরিক প্র’তিবন্ধকতা ভু’লে গিয়ে নাচতে শু’রু করে দেবেন।

আমি ক’লকাতার র’সগোল্লা, এই গানটির স’ঙ্গে কোমর দু’লিয়ে দু’লিয়ে নেচে তাক লা’গিয়ে দিয়েছেন বৃ’দ্ধা।

নেহাতই ম’জার ছলে হয়তো ঠা’কুমাকে কেউ নাচ দে’খাতে বলেছিল, কিন্তু ঠা’কুমা যেভাবে সক’লকে তাক লা’গিয়ে দেবেন তা হয়তো কেউ ভাব’তে পারেনি।

ভি’ডিওটি সো’শ্যাল মি’ডিয়ায় পো’স্ট হতেই হয়ে যায় ভাইরাল। সকল নে’টিজেন ঠা’কুমার এই নাচ দেখে হয়েছেন ‘মুগ্ধ।

Check Also

পরনে ব্ল্যাক হট স্লিভলেস পোশাক, লাস্যময়ি লুকে ভাইরাল অভিনেত্রী পূজা, রইল ছবি

বলিউডে একটি জনপ্রিয় নাম হল পুজা ব্যানার্জী (Puja Banerjee)। তিনি টলিউডে বেশ কিছু ছবি ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *