টিকটক ভিডিও নায়িকা বানানোর প্রলোভন, ফরিদপুর যৌনপল্লী থেকে কিশোরী উদ্ধার

ভালো বেতনের চাকরি ও টিকটক ভিডিও নায়িকা বানানোর প্রলোভন দেখিয়ে ফরিদপুরে যৌনপল্লীতে নিয়ে যাওয়া হয় পনের বছরের এতিম এক কিশোরীকে। সেখানে একটি ঘরে তাকে তালাবদ্ধ করে রাখা হয়। র‌্যাব জানায়, মেয়েটি থাকতো ঢাকার মোহাম্মাদপুরে তার ফুপুর বাড়িতে। বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে ওই কিশোরকে ফরিদপুর যৌনপল্লীতে নিয়ে আসেন আদম কাজী নামের এক প্রতারক।

খবর পেয়ে মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) রাতে কিশোরীকে উদ্ধার করে র‌্যাব-৮। এ ঘটনায় ওই ঘরের মালিক আদম কাজীকে (৫০) গ্রেফতার করা হয়। আজ বুধবার (২৮ জুলাই) র‌্যাব-৮ এর দেওয়া এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানানো হয়। র‌্যাব-৮ এর কোম্পানি অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ আবদুর রহমান জানান,

আদম কাজী মানবপাচারকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য। দীর্ঘদিন ধরে মানবপাচারকারী দলের সদস্য আদম কাজী বিভিন্ন জেলা থেকে সহজ-সরল মেয়েদের ভালো বেতনের চাকরি দেয়াসহ টিকটক ভিডিওর মডেল বানানোর প্রলোভন দেখিয়ে ফরিদপুর যৌনপল্লীসহ বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করছেন। ফরিদপুরের রথখোলায় গড়ে ওঠা বৃহত্তর এই যৌনপল্লীতে একটি দোতলা বাসা রয়েছে তার। তিনি আরও জানান, দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কিশোরীদের নানা কায়দায় এখানে এনে কাউকে অন্য জায়গায় বিক্রি করে দেয়া হয়।

Check Also

আবরারের পরিবারকে ১২ বছর মাসিক ৭৫ হাজার টাকা দেবে বুয়েট!

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) আগামী ১২ বছরের জন্য নিহত বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *