স্বামীকে হত্যা করে একই ঘরে প্রেমিককে নিয়ে রাতযাপন, প্রেমিক যুগল আটক

মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলায় স্বামী বিজয় বাউরী (৪০) কে হত্যা করে প্রেমিকের সঙ্গে একই ঘরে স্ত্রী পরকীয়ায় লিপ্ত থাকার অভিযোগে স্ত্রী অস্টমী বাউরী (৩৫) ও প্রেমিক সেলিম মিয়া (৩৭)কে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয়রা। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) ভোর রাতে উপজেলার সদর ইউনিয়নের ফুলবাড়ী চা- বাগানের নতুন লাইন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সকাল ১১টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতার পাঠিয়েছে।

স্থানীয় সুত্র ও পুলিশ সূত্র জানা যায়, উপজেলার ফুলবাড়ি চা বাগানের নতুন লাইন এলাকার চা শ্রমিক বিজয় বাউরীর স্ত্রী অস্টমী বাউরী (৩৫) গোপনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে একই এলাকার চাঁন মিয়ার ছেলে সেলিম মিয়া (৩০) সাথে। দীর্ঘ দিনের সম্পর্কের জের ধরে বৃহস্পতিবার ভোর রাতে স্ত্রী অস্টমী বাউরী স্বামী ঘুমিয়ে যাবার পর প্রেমিক সেলিম মিয়া ঘরে প্রবেশ করে অসামাজিক কার্যকলাপে লিপ্ত হয়। বিষয়টি টের পেয়ে নিহত বিজয়ের বড় ভাই দয়াল বাউরী স্থানীয় লাল বাবু বাউরী ও বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি মনুরঞ্জন পালকে অবহিত করেন।

পরে তারা চা বাগানের লোকজনদের সাথে নিয়ে ঘরে থাকা প্রেমিক সেলিম ও বিজয়ের স্ত্রীকে আটক করেন। এ সময় ঘুমন্ত স্বামী বিজয় বাউরীকে অসচেতন অবস্থায় মেঝেতে পরে থাকতে দেখে চা বাগানের ডাক্তার কে খবর দিলে ডাক্তার সকাল ৬টায় এসে বিজয়কে মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে স্থানীয়রা প্রেমিক যুগলকে বেঁধে রেখে কমলগঞ্জ থানা পুলিশকে খবর দেন। খবর পেয়ে কমলগঞ্জ থানা পুলিশের একটি দল সকালে ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে সুরতালরিপোর্ট তৈরী করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার মর্গে পাঠায়। এ সময় নিহত বিজয়ের স্ত্রী ও প্রেমিককে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন।

স্থানীয়রা ধারনা করেন, স্ত্রী রাতে খাবারের সাথে ঘুমের বড়ি খাওয়ানোর কারনে তার মৃত্যু হতে পারে। তবে নিহতের মা যমুনা বাউরী অভিযোগ করে বলেছেন, তার ছেলেকে ছেলের বউ ও প্রেমিক সেলিম মিয়া হত্যা করেছে। তিনি ছেলের হত্যার বিচার দাবী করেছেন। কমলগঞ্জ থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হসপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। এ ঘটনায় ২ জনকে আটক করা হয়েছে। আইন অনুযায়ী দুজনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Check Also

অনলাইন থেকে শুক্রাণু কিনে ‘ই-বেবি’র জন্ম দিলেন নারী

সন্তান পেতে চেয়েছিলেন। তবে শুধু এই কারণে বাধ্য হয়ে কোনো সম্পর্কে জড়াতে চাননি ৩৩ বছর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *