লালসা মিটিয়ে অন্য মেয়েকে বিয়ে করল প্রেমিক, লজ্জায় কিশোরী প্রেমিকার আত্মহত্যা

দীর্ঘদিনের প্রেম। একান্ত সময়ে অনেকবার নিজের লালসা মিটিয়েছে প্রেমিক রাজু। সম্প্রতি সে পরিবারের কথায় অন্য মেয়েকে বিয়ে করেছে। এ খবর শোনার পর লজ্জায় আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন রাজুর কিশোরী প্রেমিকা। নিজের ওড়নায় ফাঁস দিয়েছেন তিনি। রোববার বিকেলে এ ঘটনা ঘটেছে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের টেপরীর বাজার গাছবাড়ী এলাকায়। ঘটনা জানাজানির পর এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

নিহত কিশোরী ওই এলাকার একটি দাখিল মাদরাসার শিক্ষার্থী ছিল। একদিকে, নিহত প্রেমিকার বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। লাশের ময়নাতদন্তে ব্যস্ত পুলিশ। একই সময় অন্যদিকে, প্রেমিকের বাড়িতে বিয়ের দাওয়াত খাচ্ছে কয়েকশ মানুষ। এমন ঘটনায় হতবাক এলাকাবাসীও। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বাবাহারা ওই কিশোরীর মা কাজ করতেন গার্মেন্টসে। কয়েক বছর আগে তারা আশ্রয় নেন টেপরীর বাজার গাছবাড়ী এলাকার নানা বাড়িতে। মায়ের আয়েই চলত ওই কিশোরীর পড়াশোনা। মাদরাসায় যাতায়াতের সময় তার ওপর নজর পড়ে টেপরীর বাজার এলাকার প্রভাবশালী মকু মিয়ার ছেলে রাজুর।

তার প্রেমের প্রস্তাব ও বিয়ের প্রলোভনে ফেঁসে যায় ওই কিশোরী। অনেকদিন বিভিন্ন স্থানে প্রেমিকার সঙ্গে একান্ত সময় কাটিয়েছে রাজু, মিটিয়েছে লালসা। আরো জানা গেছে, দুই সপ্তাহ আগে গোপনে ওই কিশোরীর নানাবাড়িতে যায় প্রেমিক রাজু। ওই সময় পরিবারের সদস্যরা প্রেমিক যুগলকে আপত্তিকর অবস্থায় হাতেনাতে ধরে ফেলেন। পরে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে কৌশলে ছাড়া পায় রাজু। তবে তার কথায় বিশ্বাস না করে মামলা করে ওই কিশোরীর পরিবার। ওই মামলায় রাজুকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর জামিনে বের হয়ে প্রেমিকাকে বিয়ে করবে না জানিয়ে শনিবার পরিবারের কথায় অন্য মেয়েকে বিয়ে করে রাজু।

এমনকি বিষয়টি মোবাইলে নিজের প্রেমিকাকেও জানায় সে। এতেই ভেঙে পরে ওই কিশোরী। লজ্জায়-অভিমানে নিজের ঘরে গলার ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে সে। ফুলবাড়ী থানার ওসি (তদন্ত) সারওয়ার পারভেজ জানান, নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে- রাজুর কারণে সে আত্মহত্যা করেছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। রাজুর বিরুদ্ধে আগের একটি মামলা রয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

Check Also

অনলাইন থেকে শুক্রাণু কিনে ‘ই-বেবি’র জন্ম দিলেন নারী

সন্তান পেতে চেয়েছিলেন। তবে শুধু এই কারণে বাধ্য হয়ে কোনো সম্পর্কে জড়াতে চাননি ৩৩ বছর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *