প্রেমিকের বিশেষ অঙ্গ কেটে কারাগারে গৃহবধূ

নাটোরের বড়াইগ্রামে পরকীয়া প্রেমিক আমিন উদ্দিনের (৪০) বিশেষ অঙ্গ কর্তনের অভিযোগে এক প্রবাসীর স্ত্রীকে (৩৬) কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। আমিন উদ্দিন একই উপজেলার পানসিপাড়া গ্রামের আব্দুস সোবহানের ছেলে। জানা যায়, ওই নারীর বাড়ি লালপুর উপজেলার। প্রায় ১৫ বছর আগে তার বিয়ে হয়। দুই বছর আগে স্বামী সৌদি আরব গেলে আমিন উদ্দিনের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন ওই গৃহবধূ।

বিষয়টি জানাজানি হলে একপর্যায়ে স্বামী তাকে তালাক দেন। এরপর একই উপজেলার দেলুয়া গ্রামের আজাহার উদ্দিনের ছেলে আনোয়ার হোসেনের সঙ্গে পুনরায় বিয়ে হয় তার। এ অবস্থায় গত সোমবার সন্ধ্যায় পরকীয়ার টানে বড়াইগ্রামের শ্রীখণ্ডী গ্রামে আমিন উদ্দিনের সঙ্গে তার আত্মীয় শফিউল্লার বাড়িতে আসেন। সেখানে তাদের মধ্যে নিজেদের অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে তর্ক-বিতর্ক হলেও পরে তা মিটে যায়। পরে রাত দেড়টার দিকে অন্তরঙ্গ সময় কাটানোর সময় গৃহবধূ তার কাছে থাকা ব্লেড দিয়ে আমিনের বিশেষ অঙ্গ কেটে দেয়। তখন আমিনের আর্ত-চিৎকারে অন্য ঘর থেকে শফিউল্লাসহ প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসেন।

এ সময় কৌশলে বোরকা পরে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয়রা ওই নারীকে আটক করেন। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাকে আটক করে। একইসঙ্গে আমিনকে উদ্ধার করে প্রথমে বড়াইগ্রাম হাসপাতালে এবং পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। বড়াইগ্রাম থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুর রহিম জানান, ভিকটিম আমিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। অভিযুক্ত নারীকে আটক করে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Check Also

অনলাইন থেকে শুক্রাণু কিনে ‘ই-বেবি’র জন্ম দিলেন নারী

সন্তান পেতে চেয়েছিলেন। তবে শুধু এই কারণে বাধ্য হয়ে কোনো সম্পর্কে জড়াতে চাননি ৩৩ বছর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *