দুই ঘণ্টার ব্যবধানে বাবা-মেয়ের আত্মহত্যা!

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় মেয়ের আত্মহত্যার খবর শুনে বাবাও বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন। রোববার বিকালে উপজেলার ঝাটিবুনিয়া গ্রামের এক সন্তানের জননী জান্নাতি আক্তার হ্যাপি (১৯) স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে বিষপান করেন। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে মেয়ের মৃত্যুর খবর শুনে শোক সইতে না পেরে বাবা জাকির হোসেনও (৪৮)

বাড়ির লোকজনের অগোচরে বিষপান করেন। স্বজনরা তাকেও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। হ্যাপির মৃত্যুর ঘটনায় তার দাদা মান্নান হাওলাদার বাদী হয়ে হ্যাপির স্বামী মামুন হাওলাদারের বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে মামলা করলে পুলিশ রাতেই মামুনকে গ্রেফতার করেন। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, হ্যাপির তিন মাস বয়সের সময় বাবা জাকির হোসেন সুপারি গাছ থেকে পরে পঙ্গুত্ব বরণ করেন।

এরপর হ্যাপির মা অন্যত্র চলে যায়। শিশু সন্তানের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে হ্যাপির বাবা আর দ্বিতীয় বিয়ে করেননি। তিনি মেয়েকে লালন পালন করে ভাগ্নে মামুনের কাছে বিয়ে দেন। রাইসা আক্তার তাবাসসুম নামে তাদের সাড়ে তিন বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। কিন্তু মামুন সম্প্রতি পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন। এ নিয়ে দাম্পত্য কলহের জের ধরে হ্যাপি রোববার বিষপানে আত্মহত্যা করেন।

হ্যাপির মৃত্যুর দুই ঘণ্টার পর বাবা জাকির হোসেনও বিষপান করে অসুস্থ হয়ে পড়েন। মঠবাড়িয়া থানার ওসি মুহা. নূরুল ইসলাম বাদল জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সোমবার সকালে পিরোজপুর জেলা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় একটি আত্মহত্যা প্ররোচনা ও একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। আত্মহত্যার প্ররোচনা মামলায় হ্যাপির স্বামী মামুনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

Check Also

অনলাইন থেকে শুক্রাণু কিনে ‘ই-বেবি’র জন্ম দিলেন নারী

সন্তান পেতে চেয়েছিলেন। তবে শুধু এই কারণে বাধ্য হয়ে কোনো সম্পর্কে জড়াতে চাননি ৩৩ বছর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *