‘তালেবানের কালোতালিকাভুক্তদের সামনে বড় বিপদ’

তালেবান আফগানিস্তানের বেশ কিছু মানুষকে হামলার লক্ষ্যবস্তু করেছে। তালেবান তাঁদের আটক করবে। বিচারব্যবস্থার মুখোমুখি করবে। তালেবান তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করবে এবং তাঁদের পরিবারের সদস্যদের শাস্তি দেবে। তালেবানের কালোতালিকায় যাঁরা রয়েছেন, তাঁদের সামনে বড় ধরনের বিপদ অপেক্ষা করছে। এমনকি তাঁদের হত্যাও করা হতে পারে। জাতিসংঘের কাছে দেওয়া আরএইচআইপিটিও নরওয়েজিয়ান সেন্টার ফর গ্লোবাল অ্যানালিসিসের গোপন নথিতে জানানো হয়েছে এমন তথ্য। খবর বিবিসির।

বিজ্ঞাপন
এই গোপন নথি প্রকাশে আরএইচআইপিটিও নরওয়েজিয়ান সেন্টার ফর গ্লোবাল অ্যানালিসিস গ্রুপের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন ক্রিস্টিয়ান নেলম্যান। তিনি এই বিপদের আভাস দিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
জাতিসংঘের কাছে দেওয়া ওই গোপন নথিতে বলা হয়েছে, আফগানিস্তানে যাঁরা ন্যাটো বাহিনী অথবা সাবেক আফগান সরকারের জন্য কাজ করেছেন, তাঁদের খুঁজছে তালেবান। এসব ব্যক্তিকে খুঁজে বের করতে তালেবান দরজায় দরজায় যাচ্ছে। তাঁদের পরিবারের সদস্যদের খুঁজছে।

যদিও তালেবান স্থানীয় সময় গত রোববার কাবুল দখলে নেওয়ার পর থেকে বলে আসছে তারা কোনো ধরনের প্রতিশোধ নিতে চায় না। মুখে যা–ই বলুক, গত শতকের নব্বইয়ের দশকের তুলনায় তালেবান কতটুকু বদলেছে, তা নিয়ে শঙ্কা রয়েই গেছে।
আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় আফগানিস্তান থেকে নিজেদের দেশের নাগরিকদের সরিয়ে নিচ্ছে। ন্যাটোর এক কর্মকর্তা স্থানীয় সময় আজ শুক্রবার জানিয়েছেন, কাবুল বিমানবন্দর থেকে গত পাঁচ দিনে ১৮ হাজারের বেশি মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। ছয় হাজারের বেশি দোভাষীকে প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে। যেকোনো সময় তাঁদের সরিয়ে নেওয়া হবে। এ সপ্তাহেই দ্বিগুণ মানুষকে আফগানিস্তান থেকে সরিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে বলে তিনি জানান।

বিজ্ঞাপন
কাবুল বিমানবন্দরের বাইরে পরিস্থিতি খুবই বিশৃঙ্খল। যেসব আফগান পালিয়ে যেতে চাইছেন, তালেবান তাঁদের বাধা দিচ্ছে। একটি ভিডিওতে এক শিশুকে মার্কিন এক সেনার কাছে হস্তান্তর করতে দেখা গেছে।

Check Also

অনলাইন থেকে শুক্রাণু কিনে ‘ই-বেবি’র জন্ম দিলেন নারী

সন্তান পেতে চেয়েছিলেন। তবে শুধু এই কারণে বাধ্য হয়ে কোনো সম্পর্কে জড়াতে চাননি ৩৩ বছর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *