বর-বধূ এলো হেলিকপ্টারে, জনতার ভিড়

মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলা সদরে হেলিকপ্টারে করে নববধূকে শ্বশুরবাড়িতে নিয়ে এসেছেন ছাত্রলীগ নেতা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আব্বাস আল কোরেশী। শুক্রবার (২০ অগাস্ট) বিকেলে হেলিকপ্টার ও বর-বধূকে দেখার জন্য উপজেলা সদরের আমিনুর কলেজ মাঠে শত শত উৎসুক জনতা ভিড় করে। ঘটনাটি এলাকায় সাড়া ফেলেছে।এলাকাবাসী ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা সদরের মুসল্লি গোষ্ঠীর সন্তান সদ্য প্রয়াত ড. মাওলানা এ টি এম ওমর ফারুকের বড় ছেলে আব্বাস আল কোরেশী (২৪) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের ছাত্র। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের বিজ্ঞান অনুষদের সহ-সভাপতিও।

নববধু জান্নাতুল নাইমার গ্রামের বাড়ি নাটোরে। বাবা-মা ঢাকায় সরকারি চাকরি করেন। তিনি ফরিদপুর সরকারি মেডিকেল কলেজের এমবিবিএস তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী।আব্বাস আল কোরেশী ও জান্নাতুল নাইমার আজ শুক্রবার (২০ আগস্ট) ঢাকার জিগাতলার অভিজাত কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ে হয়। পরে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে আব্বাস তার নববধূকে নিয়ে মেঘনা এ্যাভিয়েশনের হেলিকপ্টারে করে মাগুরার আমিনুর রহমান কলেজ মাঠে নামেন। এ সময় কলেজ মাঠে শত শত মানুষ ভিড় করে। বর ও বধূ হেলিকপ্টার থেকে নেমে উৎসুক লোকজনের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

নবদম্পতির সঙ্গে ছিলেন বরের বোন সেগুপতা তারমিজ, স্ত্রীর বোন ও বরের ফুপাতো ভাই। বর আব্বাস আলী কোরেশী বলেন, করোনা মহামারির কারণে নিজ এলাকা মহম্মদপুর সদরে বিয়ে উপলক্ষে অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে পারেননি। ছোট থেকে ইচ্ছা ছিলো হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করার। ইচ্ছা পূরণ হওয়ায় তিনি দারুণ খুশি। নতুন দম্পতি সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।

হেলিকপ্টারে আসা বর-বধূকে দেখতে আসা স্থানীয় রেহেনা আক্তার (৪০) বলেন, ‘আমাগের গ্রামের ছেলে হেলিকপ্টারে বিয়ে করে আসবে, তাই দেখতে এসেছেন।’ ফারুক হোসেন (৩২) ও আরিফুল ইসলামও (৪০) একই কথা বলেন। মহম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাসির হোসেন বলেন, আব্বাস বউকে নিয়ে হেলিকপ্টারে এলাকায় আসবেন, বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) রাতেই তাকে তা অবহিত করেন।

Check Also

৫ অক্টোবর ঢাবির হল খোলার সুপারিশ প্রভোস্ট কমিটির

করোনা পরিস্থিতির কারণে প্রায় দেড় বছর ধরে বন্ধ থাকা আবাসিক হলগুলো খুলে দেওয়ার সুপারিশ করেছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *