প`রকীয়ার পরে বিয়ের চাপ দেওয়াই প্রবাসীর স্ত্রীকে গলা কেটে হ`ত্যা

নেত্রকোনায় প`রকীয়া সম্পর্কে বলি হলেন প্রবাসীর স্ত্রী শরিফা আক্তার (৩২)। গ`লা কেটে হ`ত্যাকান্ডে মামলার ৪৮ ঘন্টার মধ্যে হ`ত্যা রহস্য উদঘাটন করতে পেরেছে নেত্রকোনা মডেল থানা পুলিশ। মঙ্গলবার বিকেলে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে চাঞ্চল্যকর হ`ত্যাকা`ন্ডের প্র`কৃত ঘটনার তথ্য জানান থানার ওসি খন্দকার শাকের আহমেদ।

হ`ত্যাকারী মো. সুভাস মিয়া (৩৭) তিনি সদর উপজেলার মদনপুর ইউনিয়নের কাংশা গ্রামের মো. আ. বারেকের ছেলে এবং তার মনোহারী, বিকাশ ও মোবাইল রিচার্জের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। তিনি বিবাহিত ও দুই সন্তানের জনক।প`রকীয়ার পরে বিয়ের চাপ দেয়ায় প্রবাসীর স্ত্রীকে গলা কেটে হ`ত্যা করে মো. সুভাস মিয়া

জানা যায়, শরিফা আক্তারে স্বামী রিপন মিয়া মালয়েশিয়া প্রবাসী। হ`ত্যাকারী একই এলাকার বাসিন্দা ও ছোট বেলা থেকে পরিচিত ছিলেন ভিকটিম শরিফার সাথে। বিদেশ থেকে স্বামীর প্রেরিত টাকা বিকাশের মাধ্যমে লেনদেনের সময় কথাবার্তায় দুজনের মধ্যে ঘ`নিষ্ঠতা বাড়ে। সম্প্রতি পাঁচ-ছয় যাবত তাদের সখ্যতা আরো বাড়তে বাড়তে অবশেষে অ`বৈধ সম্পর্ক (পরকীয়) গড়ে ওঠে।

স্বামী বিদেশ থাকার সুবাধে প্রায় সময়ই হ`ত্যাকারী ভি`কটিমের ঘরে প্রবেশ করে শ`রিরীক স`ম্পর্কে লিপ্ত হতেন। এলাকার অন্যান্য মালয়েশিয়ান প্রবাসীরা সুভাসের দোকানে বিকাশের মাধ্যমে টাকা পাঠাতেন যার কারণে স্থানীয়রা দোকানে আসা যাওয়ায় সন্দেহ পোষন করতেন না দুজনের সম্পর্ককে। গত ১৪-১৫ দিন আগে সুভাসকে বিয়ের জন্য চাপ দেন ভি`কটিম।

Check Also

অনলাইন থেকে শুক্রাণু কিনে ‘ই-বেবি’র জন্ম দিলেন নারী

সন্তান পেতে চেয়েছিলেন। তবে শুধু এই কারণে বাধ্য হয়ে কোনো সম্পর্কে জড়াতে চাননি ৩৩ বছর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *