আমি আর কোন দিন ঝগড়া করব না, আমার স্বামীকে ফিরিয়ে দাও আল্লাহ

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে স্ত্রীর সঙ্গে কলহের জেরে গ`লায় ফাঁ`স দিয়ে আত্মহ`ত্যা করেছেন শরীফুল ইসলাম (৩০) নামে এক যুবক। বৃহস্পতিবার বিকেলে যাত্রাবাড়ীর কুতুবখালী এলাকায় নিজের ঘরে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দেন তিনি।

অচেতন অবস্থায় শরীফুলকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বিকেল ৫টার দিকে তাকে মৃ`ত ঘোষণা করেন। শরীফুল ফরিদপুর জেলার আলফাডাঙ্গা থানার মোহাম্মদ আলীর ছেলে।

তিনি দুই বোন এক ভাইয়ের মধ্যে দ্বিতীয়। মতিঝিলে একটি বাসের কাউন্টারে চাকরি করা শরীফুল স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস ও তিন বছরের এক কন্যা সন্তানকে নিয়ে কুতুবখালীর ওই চারতলার বাসায় থাকতেন। শরীফুলের স্ত্রী বলেন, বুধবার আমার সঙ্গে পারিবারিক বিষয় নিয়ে তার ঝ`গড়া হয়।

আমি তাকে রা`গ করে বলেছিলাম তোমাকে ডি`ভোর্স দিয়ে দেবো। এ বিষয় নিয়ে মা`নসিকভাবে সে ভেঙ্গে পড়ে। বিকেলে বাসায় গ্যাস না থাকায় কাছেই আমার মায়ের বাসায় রান্নার করার জন্য চলে যাই। এরপর বাসায় এসে দরজা বন্ধ দেখি। অনেক ডাকাডাকি করার পরও দরজা না খুললে তা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে দেখি,

সে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গ`লায় ফাঁ`স দিয়ে ঝুলে আছে। অচেতন অবস্থায় তাকে উ`দ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যালে নিয়ে এলে চিকিৎসক মৃ`ত ঘোষণা করেন। আমি আর কোন দিন ঝগড়া করব না। আমার স্বামীকে ফিরিয়ে দাও আল্লাহ।তাদের তিন বছরের একটি মেয়েশিশু আছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমি এখন কি নিয়ে বাঁচব। আমার মেয়ে তো বাবা ছাড়া কিছুই বোঝে না। ম`রদেহটি হাসপাতালের জরুরী বিভাগের ম`র্গে রাখা হয়েছে।

Check Also

আবরারের পরিবারকে ১২ বছর মাসিক ৭৫ হাজার টাকা দেবে বুয়েট!

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) আগামী ১২ বছরের জন্য নিহত বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *