পুলিশ’ লেখা গাড়িতে ভুয়া এএসপি, আটক ৩

কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা শিবির এলাকায় সন্দেহজনকভাবে ঘোরাঘুরির সময় তিনজনকে আটক করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)। ওই তিনজন যে গাড়িতে ছিলেন, সেটির সামনে ও পেছনে ‘পুলিশ’ লেখা স্টিকার ছিল। তিনজনের একজন নিজেকে সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) হিসেবে পরিচয় দেন। পরে জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেন, তিনি পুলিশ সদস্য নন।

আটক তিনজন হলেন গোপালগঞ্জের বরফা পশ্চিম শুকতাইল এলাকার শাহজাহান মোল্লার ছেলে আহসান ইমাম (৩৩), গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের মনোয়ার হোসেনের ছেলে মানসুর রহমান (২৯) ও পটুয়াখালীর গলাচিপার আবদুল হক শিকদারের ছেলে মোহাম্মদ মিন্টু (৩০)।

বিজ্ঞাপন
পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই এলাকায় এপিবিএনের তল্লাশিচৌকিতে একটি গাড়িকে থামানোর সংকেত দেন পুলিশ সদস্যরা। তা অমান্য করে গাড়িটি (ঢাকা মেট্রো-গ-২৩-৮৬৭৩) শিবিরের ভেতরের দিকে যেতে থাকে। তবে সেটি আরও কিছুটা ভেতরে গিয়ে একটি অফিসের সামনে গিয়ে থেমে যায়।

এপিবিএনের সদস্যরা সেখানে গিয়ে দেখতে পান, গাড়িটির সামনে ও পেছনে ‘পুলিশ’ লেখা স্টিকার লাগানো। তাঁরা গাড়িতে থাকা ব্যক্তিদের নাম–পরিচয় জানতে চান। তখন গাড়ির ভেতরের একজন নিজেকে ‘এএসপি পিয়াল’ হিসেবে পরিচয় দেন। বলেন, তিনি ৩৪তম বিসিএসের পুলিশ ক্যাডার। বিপি নম্বর-৩৩০৭১৭। বর্তমানে তাঁর পদায়ন ঢাকায় পুলিশ সদর দপ্তরে। ওই ব্যক্তির কথাবার্তায় সন্দেহ হয় এপিবিএন সদস্যদের। তাঁরা ক্যাম্প কমান্ডারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বিষয়টি অবহিত করেন। পরে কর্মকর্তাদের জিজ্ঞাসাবাদে একপর্যায়ে ওই ব্যক্তি স্বীকার করেন, তিনি পুলিশ সদস্য নন।

Check Also

অনলাইন থেকে শুক্রাণু কিনে ‘ই-বেবি’র জন্ম দিলেন নারী

সন্তান পেতে চেয়েছিলেন। তবে শুধু এই কারণে বাধ্য হয়ে কোনো সম্পর্কে জড়াতে চাননি ৩৩ বছর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *