মেহেদীর রঙ মোছার আগেই মুছে গেল সুমার জীবনের রঙ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরের জহিরুলের সঙ্গে গত ২০ আগস্ট দুই পরিবারের সম্মতিতে বিয়ে হয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরের শারমিন আক্তার সুমার। মেহেদির রঙ মুছে যাওয়ার আগেই মাত্র এক সপ্তাহের ব্যবধানে মুছে গেল সুমার জীবনের রঙ।

শুক্রবার (২৭ আগস্ট) বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে শ্বশুরবাড়ি থেকে ফেরার সময় বিজয়নগর উপজেলার পত্তন ইউনিয়নের লইস্কা বিলে বালুবোঝাই ট্রলারের ধাক্কায় যাত্রীবাহী নৌকাডুবিতে মৃত্যু হয় শারমিন আক্তার সুমার। শনিবার সকাল পর্যন্ত নারী ও শিশুসহ ২২ জনের লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস।

শনিবার সকালে শারমিন আক্তার সুমার বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার ভাটপাড়া গ্রামে গিয়ে দেখা গেছে শোকের মাতম। সুমা ওই গ্রামের জারু মিয়ার একমাত্র মেয়ে। তার ভাই ও মায়ের আহাজারিতে এলাকার বাতাস ভারি হয়ে উঠেছে।

সুমার মামা আশিক মিয়া জানান, মাত্র সাতদিন আগে তার ভাগ্নিকে বিজয়নগরের ভিটিদাউদপুরের মো. জহিরুল ইসলামের সঙ্গে বিয়ে দেন। স্থানীয় বাজারে মিষ্টির কারিগর হিসেবে কাজ করতেন জহিরুল। নববিবাহিত স্ত্রীকে নিয়ে নৌকায় করে নিজের বাড়ি থেকে শ্বশুরবাড়ি যাচ্ছিলেন জহিরুল। সে যাত্রাই শেষ যাত্রা হলো নববধূ সুমার।

Check Also

অনলাইন থেকে শুক্রাণু কিনে ‘ই-বেবি’র জন্ম দিলেন নারী

সন্তান পেতে চেয়েছিলেন। তবে শুধু এই কারণে বাধ্য হয়ে কোনো সম্পর্কে জড়াতে চাননি ৩৩ বছর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *