সৌদিপ্রবাসী মা–বাবা ফেরার পর দাফন হলো আরিফের লাশ

সৌদিপ্রবাসী মা-বাবা দেশে ফেরার পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নৌকাডুবিতে মারা যাওয়া মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী আরিফ বিল্লাহর (২০) লাশ দাফন করা হয়েছে। আজ রোববার সকাল ১০টায় বিজয়নগর উপজেলার চম্পকনগর নৌকাঘাট-সংলগ্ন স্থানীয় মডেল উচ্চবিদ্যালয় মাঠে আরিফের জানাজা সম্পন্ন হয়। পরে গ্রামের কবরে তাঁর লাশ দাফন করা হয়।

আরিফ উপজেলার চম্পকনগর গ্রামের সৌদিপ্রবাসী জহিরুল হক ভূঁইয়ার ছেলে। তাঁর মা পারভীন ভূঁইয়াও সৌদি আরবপ্রবাসী। ছেলের মৃত্যুর খবর পেয়ে শনিবার রাতে তাঁরা দেশে ফিরে আসেন। আরিফ পরিবারের বড় ছেলে ছিলেন। এ বছর ঢাকা গ্রিন লাইফ মেডিকেল কলেজে ভর্তি হয়েছিলেন। স্বপ্ন ছিল চিকিৎসক হওয়ার। পরিবারের স্বপ্নও ছিল আরিফকে ঘিরে। নৌকাডুবিতে আরিফের মৃত্যু যেন পরিবারের স্বপ্নকেও ডুবিয়ে দিল।

বিজ্ঞাপন
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মা-বাবা সৌদিপ্রবাসী হওয়ায় একটি ফ্রিজিং অ্যাম্বুলেন্সে আরিফের লাশ রাখা হয়। রোববার তাঁর মেডিকেল কলেজের বন্ধুরাও শেষবারের মতো আরিফকে দেখতে আসেন। আরিফের বাবা ও দুই চাচা সৌদি আরবের দাম্মাম নগরে ব্যবসা করেন। যৌথ পরিবার। দুই চাচাও দেশে এসেছেন। দাদা মনিরুল ইসলাম, বড় চাচা ওমর ফারুক (৩৫) ও ছোট চাচা বোরহান উদ্দিন (৩০) বিলাপ করছিলেন আর বলছিলেন, সবার স্বপ্ন শেষ হয়ে গেল।

প্রত্যক্ষদর্শী একাধিক ব্যক্তি জানান, ডুবে যাওয়ার সময় আরিফ নৌকা থেকে লাফ দিয়ে পানিতে পড়ে। আরিফকে জাপটে ধরে অনেকেই বাঁচতে চেয়েছিলেন। শেষে তাঁর জীবনই যায় সবার আগে।

Check Also

আরও ২ মামলায় জামিন পেলেন হেলেনা জাহাঙ্গীর

আওয়ামী লীগের বহিস্কৃত বিতর্কিত ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীরকে রাজধানীর গুলশান থানায় মাদক ও পল্লবী থানায় প্রতারণা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *