পুলিশ থামতে বলায় চলন্ত গাড়ি থেকে নদীতে লাফ, পরে উদ্ধার

মাদকদ্রব্য পাচারের খবর পেয়ে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে তল্লাশিচৌকি বসায় পুলিশ। এ সময় পুলিশ সন্দেহভাজন একটি মাহিন্দ্রকে থামতে বলে। মাহিন্দ্র থামার আগেই এক যাত্রী লাফ দিয়ে প্রথমে মহাসড়কে পড়েন। এরপর তিনি নদীতে লাফ দেন। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাতটায় রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের পদ্মার মোড়ে মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে।

তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ নদীতে ওই ব্যক্তির খোঁজ করতে শুরু করে। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মী ও স্থানীয় লোকজন প্রায় সোয়া দুই ঘণ্টা পর কচুরিপানার ভেতর থেকে অসুস্থ অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করেন।

ওই ব্যক্তির নাম কলম শেখ (৪৫)। তিনি ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার আইজদ্দিন মাতুব্বর ডাঙ্গীর মালেক শেখের ছেলে। বর্তমানে তিনি পুলিশি পাহারায় গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

বিজ্ঞাপন
পুলিশ জানায়, থামার সংকেত দিলে কলম শেখ চলন্ত গাড়ি থেকে লাফ দেন। এতে তাঁর হাত–পাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়। তবে দ্রুত উঠে তিনি সড়কের পূর্ব পাশে পদ্মা নদীতে লাফ দেন। কিন্তু কচুরিপানায় ভরপুর থাকায় ওই ব্যক্তিকে সহজে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। খবর পেয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানার আরও দুটি দল এবং ফায়ার সার্ভিস এসে সম্মিলিতভাবে কলম শেখের খোঁজ করতে থাকে।

Check Also

অনলাইন থেকে শুক্রাণু কিনে ‘ই-বেবি’র জন্ম দিলেন নারী

সন্তান পেতে চেয়েছিলেন। তবে শুধু এই কারণে বাধ্য হয়ে কোনো সম্পর্কে জড়াতে চাননি ৩৩ বছর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *