জ্বরে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ছাত্রের মৃত্যু

জ্বর ১০৪ ডিগ্রি, ঠান্ডা, কাঁশি। সবার দোয়া কামনা করছি।’ প্রচণ্ড জ্বর নিয়ে ফেসবুকে এমন একটি পোস্ট দিয়েছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী আল-আমিন। তাঁর পোস্টের মন্তব্য ঘরে অনেকেই দ্রুত সুস্থতা কামনা করলেও আর সুস্থ্ হয়ে ওঠেননি আল-আমিন। আজ বৃহস্পতিবার ভোরে মিরপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেওয়ার পথেই মারা যান তিনি। তাঁর এ অকালমৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগ।

বিজ্ঞাপন
আল-আমিনের সহপাঠীদের বরাত দিয়ে বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আরিফুল আবেদ প্রথম আলোকে বলেন, ঈদের পর আল-আমিন বগুড়া থেকে ঢাকায় চলে আসেন। দু–তিন দিন ধরে তাঁর জ্বর ছিল। গতকাল বুধবার হঠাৎ জ্বর বাড়লে মেসের সদস্যরা তাঁকে হাসপাতালে নেওয়ার পথেই আল–আমিনের মৃত্যু হয়। ধারণা করা হচ্ছে, ডেঙ্গুতে তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
আল-আমিনের সহপাঠী তানভীর ইসলাম বলেন, ‘আমরা এক রুমেই থাকতাম। সে অনেক পরিশ্রম করে পড়াশোনা করত। ফেসবুকে তার জ্বরের পোস্ট দেখে ফোন দিয়ে ডাক্তার দেখানোর কথা বলি। মিরপুরে আমাদের মেসের সামনেই একটি বেসরকারি হাসপাতাল রয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোরে তাঁর অবস্থার অবনতি হলে মেসের সদস্যরা হাসপাতালে নেওয়ার ব্যবস্থা করে। কিন্তু হাসপাতালে নেওয়ার পথেই আল-আমিন মারা যায়।’

Check Also

আবরারের পরিবারকে ১২ বছর মাসিক ৭৫ হাজার টাকা দেবে বুয়েট!

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) আগামী ১২ বছরের জন্য নিহত বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *