আপত্তিকর ভিডিও নিয়ে যা বললেন সেই কাউন্সিলর

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া আ`পত্তিকর ভিডিওটি নাটকের মহড়া বলে দাবি করছেন রাজধানীর সবুজবাগ থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর চিত্তরঞ্জন দাস। তিনি বলেন, এটা নাটকের মহড়ার চিত্র। একটা সংলাপে কাহিনিটা এ রকমই ছিল। আমার চরিত্র ছিল মোড়লের আর তার (নারী) গ্রাম্য বধূর। কিন্তু এখন ষড়যন্ত্র করে আমার বিরুদ্ধে এসব ছড়ানো হচ্ছে।

তবে ওই নারীর দাবি, কাউন্সিলর তাঁকে যৌ`ন হেনস্তা করেছেন। গত শুক্রবার ভুক্তভোগী ওই নারী তাঁর ফেসবুক অ্যাকাউন্টে একটি ছবি শেয়ার করেন। ক্যাপশনে তিনি লেখেন, ‘আমি আতঙ্কিত এবং নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। আমি একজন গণমাধ্যম কর্মী হয়েও ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর চিত্ত রঞ্জন দাস দ্বারা শ্লীলতাহানির শিকার হলাম। আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং স্থানীয় সাংসদ সদস্য জনাব সাবের হোসেন চৌধুরীর কাছে দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করছি। পাশাপাশি আইনগত সহযোগিতা কামনা করছি।’

পরে এই ঘটনার একটি ভিডিও তিনি তাঁর ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্টে আপলোড করেন। পরে সেটি ভাইরাল হয়। যেখানে দেখা যাচ্ছে, একটি কক্ষে চিত্তরঞ্জন দাস ওই নারীকে কাছে ডাকেন। তিনি কাছে এলে জোর করে জড়িয়ে ধরেন কাউন্সিলর। ওই নারী কাউন্সিলরকে থামাতে চাইলেও বেশ কয়েকবার জড়িয়ে ধরেন তিনি।

Check Also

আরও ২ মামলায় জামিন পেলেন হেলেনা জাহাঙ্গীর

আওয়ামী লীগের বহিস্কৃত বিতর্কিত ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীরকে রাজধানীর গুলশান থানায় মাদক ও পল্লবী থানায় প্রতারণা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *