দুই বোনকে অ্যাসিড মারার শাস্তি আমৃত্যু কারাদণ্ড

ভোলায় অ্যাসিড নিক্ষেপের মামলায় এক ব্যক্তিকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বুধবার বিকেলে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে (নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল) এই রায় হয়।

সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তির নাম মহব্বত হাওলাদার (অপু)। তিনি ভোলার সদর উপজেলার দক্ষিণ দীঘলদি ইউনিয়নের দক্ষিণ বালিয়া গ্রামের মানিক হাওলাদরের ছেলে।

একই এলাকার দুই বোনকে অ্যাসিড মারার ঘটনায় মহব্বতের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছিল। অ্যাসিড–সন্ত্রাসের শিকার দুই বোনের একজন পরে মারা যায়। তাদের মা জান্নাতুল ফেরদৌস মামলাটি করেন।

বিজ্ঞাপন
মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণ ও আদালত-সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, জান্নাতুল ফেরদৌসের দুই মেয়ে তানজিম আক্তার ও মারজিয়া আক্তার। এসএসসি পাস তানজিমের সঙ্গে মহব্বত হাওলাদারের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। একপর্যায়ে এই সম্পর্কে অবনতি ঘটে।

এর জের ধরে অ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনা ঘটান মহব্বত। তিনি ২০১৮ সালের ১৪ মে দিবাগত রাত দুইটার দিকে তানজিমদের বাড়িতে প্রবেশ করেন। এ সময় তানজিম ও তার বোন মারজিয়াকে অ্যাসিড নিক্ষেপ করেন।

অ্যাসিডে তানজিমের চোখ, মুখ, গলা, বুকসহ শরীরের বিভিন্ন স্থান ঝলসে যায়। পরে ঢাকায় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। মারজিয়ার গলা, কাঁধ, পিঠসহ শরীরের বিভিন্ন স্থান অ্যাসিডে দগ্ধ হলেও প্রাণে বেঁচে যায়।

Check Also

আবরারের পরিবারকে ১২ বছর মাসিক ৭৫ হাজার টাকা দেবে বুয়েট!

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) আগামী ১২ বছরের জন্য নিহত বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *