কিশোরী মেয়েকে অজ্ঞান করে শারীরিক সম্পর্ক ও ভিডিও ধারণ

ময়মনসিংহে ১৪ বছরের কিশোরীকে ধ`র্ষণের অভিযোগে হোসেন আলীকে (৫০) গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১৪। গ্রে`ফতারকৃত হোসেন আলী ময়মনসিংহ জেলা জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সভাপতি। গত রবিবার (১৯) রাতে নগরীর কৃষ্টপুর এলাকা থেকে র‍্যাব ১৪ হোসেন আলীকে গ্রেফতার করে কোতোয়ালি মডেল থানায় সোপর্দ করে। এ ঘটনায় ওই দিন মধ্যরাতে ভিক্টিম কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে হোসেন আলী ও তার তৃতীয় স্ত্রী তামান্না বেগমকে আসামি করে কোতোয়ালী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি শাহ কামাল আকন্দ। তিনি বলেন, ভিক্টিম কিশোরীর বাবা র‍্যাব ১৪’র কাছে লিখিত অভিযোগ দিলে হোসেন আলীকে গ্রেফতার করে থানায় হস্তান্তর করেন। তাকে আদালতে সোপর্দ করার প্রক্রিয়া চলছে। মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, নগরীর কৃষ্টপুর এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকার সুবাদে হোসেন আলী প্রায়ই ওই বাসায় আসা যাওয়া করত।

এই সুযোগে সে ভিক্টিম কিশোরীর সাথে সাথে কথাবার্তা বলত। এমতাবস্থায়, চলতি বছরের ১৫ জানুয়ারি সকালে হোসন আলীর তৃতীয় স্ত্রী তামান্না বেগম ওই কিশোরীকে তাদের ঘরে ডেকে নিয়ে গিয়ে পরিকল্পিত ভাবে সেভেন-আপের সাথে নেশা জাতীয় ঔষধ সেবন করায়। এতে কিশোরী অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাকে ধ`র্ষণ করে মোবাইলে ভিডিও ধারন করে হোসেন আলী। পরে ওই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার হু`মকি দিয়ে তার সাথে নিয়মিত শারীরিক সম্পর্ক করতে বলে ধ`র্ষক।

পরের দিন সকালে আবারও তামান্না বেগম ওই নাবালিকাকে ডেকে এনে তার স্বামী হোসেন আলীর সাথে শা`রীরিক সম্পর্ক করতে দিয়ে ঘরের দরজা বন্ধ করে দিয়ে বাইরে বসে পাহাড়া দেয়। এই ভাবে টানা ৫ মাস ওই নাবালিকা কে ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক ধ`র্ষণ করে হোসেন আলী।

Check Also

ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা: বড় ভাইয়ের ফাঁসি, ছোট ভাইয়ের যাবজ্জীবন

ফরিদপুরে এক নারীকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যার দায়ে শাহাবুদ্দিন খান নামে এক ব্যক্তিকে ফাঁসি এবং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *