মুফতি ইব্রাহীম রিমান্ডে

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় মুফতি কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীমকে দুদিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার অনুমতি দিয়েছেন আদালত। পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আজ বুধবার এই আদেশ দেন। প্রথম আলোকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন সরকারি কৌঁসুলি হেমায়েত উদ্দিন খান।

মোহাম্মদপুর থানায় করা মামলায় মুফতি ইব্রাহীমকে আদালতে হাজির করে ১০ দিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগের উপপরিদর্শক মুন্সি আবদুল লোকমান।

উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত মুফতি ইব্রাহীমকে দুদিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার অনুমতি দেন।

বিজ্ঞাপন
রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, গত সোমবার রাতে পুলিশ ইব্রাহীমের ভাড়া করা বাসায় গেলে তিনি বাসা থেকে বের না হয়ে উসকানিমূলক ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচার করেন। অজ্ঞাতনামা আসামিদের সহায়তায় আসামি মুফতি ইব্রাহীম ফেসবুক, ইউটিউবে মিথ্যা, উসকানিমূলক ও ভীতি প্রদর্শক তথ্য প্রচার করেন। এ বিষয়ে আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদ করলেও তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি। ভিডিওতে প্রচারিত বক্তব্য নিজের বলেও দাবি করেন। পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য আসামিকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা জরুরি।
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় মুফতি কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীমকে দুদিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার অনুমতি দিয়েছেন আদালত। পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আজ বুধবার এই আদেশ দেন। প্রথম আলোকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন সরকারি কৌঁসুলি হেমায়েত উদ্দিন খান।

মোহাম্মদপুর থানায় করা মামলায় মুফতি ইব্রাহীমকে আদালতে হাজির করে ১০ দিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগের উপপরিদর্শক মুন্সি আবদুল লোকমান।

উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত মুফতি ইব্রাহীমকে দুদিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার অনুমতি দেন।

বিজ্ঞাপন
রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, গত সোমবার রাতে পুলিশ ইব্রাহীমের ভাড়া করা বাসায় গেলে তিনি বাসা থেকে বের না হয়ে উসকানিমূলক ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচার করেন। অজ্ঞাতনামা আসামিদের সহায়তায় আসামি মুফতি ইব্রাহীম ফেসবুক, ইউটিউবে মিথ্যা, উসকানিমূলক ও ভীতি প্রদর্শক তথ্য প্রচার করেন। এ বিষয়ে আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদ করলেও তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি। ভিডিওতে প্রচারিত বক্তব্য নিজের বলেও দাবি করেন। পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য আসামিকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা জরুরি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে মুফতি কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীমের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করে। মোহাম্মদপুর থানায় গতকাল মঙ্গলবার রাতে এই মামলা হয়।
সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে মুফতি কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীমের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করে। মোহাম্মদপুর থানায় গতকাল মঙ্গলবার রাতে এই মামলা হয়।

Check Also

আবরারের পরিবারকে ১২ বছর মাসিক ৭৫ হাজার টাকা দেবে বুয়েট!

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) আগামী ১২ বছরের জন্য নিহত বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *