জাতীয় খেলোয়াড় থেকে শীর্ষ মাদক কারবারি

ছিলেন অ্যাথলেট। ১০০ মিটার স্প্রিন্টে কুষ্টিয়া জেলায় সেরা হয়ে অংশ নেন বিভাগীয় পর্যায়ে। দৌড়ে খুলনা বিভাগেও সবাইকে ছাড়িয়ে যান মো. হাসান। এরপর ঢাকায় গিয়ে ট্রায়াল দিলেও জাতীয় দলে সুযোগ পাননি। স্প্রিন্টে না পারলেও জায়গা করে নেন জাতীয় যুব হ্যান্ডবল দলে। খেলেন বেশকিছু ম্যাচ। ক্রীড়ায় যার এমন উজ্জ্বল পথচলা সেই হাসান হারিয়ে গেলেন মাদকের অন্ধকার জগতে। হয়ে উঠলেন শীর্ষ মাদক কারবারি।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে জাতীয় যুব হ্যান্ডবল দলের সাবেক এ খেলোয়াড়সহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে। শুক্রবার মধ্যরাত থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- চুয়াডাঙ্গা পৌর শহরের বড় মসজিদ পাড়ার মওলা বক্সের ছেলে মো. আবু বক্কর সিদ্দিক, আবুল হোসেনের ছেলে আসলাম, আজিজুল হকের ছেলে মো. হাসান, শহরের দৌলতদিয়াড় পাড়ার মতলেবের ছেলে তোতা মিয়া এবং এ সিন্ডিকেটের হোতা বনি। তাদের কাছ থেকে ৪৯টি প্যাথেড্রিন, ৪৪০০ টাকা ও একটি ধারালো দা উদ্ধার করা হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, মাদকবিরোধী বিশেষ অভিযানে জেলার শীর্ষ মাদক কারবারি বনি ও তার সহযোগীদের গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে জাতীয় যুব হ্যান্ডবল দলের সাবেক খেলোয়াড় হাসানও আছেন। তার বিরুদ্ধে ৬টি মামলা রয়েছে।

Check Also

ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা: বড় ভাইয়ের ফাঁসি, ছোট ভাইয়ের যাবজ্জীবন

ফরিদপুরে এক নারীকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যার দায়ে শাহাবুদ্দিন খান নামে এক ব্যক্তিকে ফাঁসি এবং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *