সন্দেহ করে থাপ্পড় প্রেমিকের, প্রাণ দিলেন প্রেমিকা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় একটি বেসরকারি হাসপাতাল থেকে সোনিয়া আক্তার (২০) নামের এক তরুণীর লা`শ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় একজনকে আ`টক করেছে পুলিশ। রোববার দিবাগত রাত ১টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের একটি হাসপাতাল থেকে এই তরুণীর লা`শ উদ্ধার করা হয়। নি`হত সোনিয়া আক্তার জেলার নাসিরনগর উপজেলার গোকর্ণ এলাকার আজিজুর রহমানের মেয়ে।

তিনি কলেজে পড়াশোনার পাশাপাশি হাসপাতালটিতে সহকারী নার্সের কাজ করতেন।পু`লিশের ধারণা, বি`ষপানে ওই তরুণী আত্মহ`ত্যা করেছেন। এ ঘটনায় এক তরুণকে আ`টক করেছে পুলিশ। হাসপাতাল ও পুলিশের একটি সূত্র জানায়, সোনিয়া আক্তার প্রায় তিন বছর আগে আল ফালাহ হাসপাতালে সহকারী নার্স পদে যোগদান করেন।

সেখানে চাকরি করার সুবাদে পাশের রেসিডেন্সিয়াল স্কুলের স্টাফ মোহাম্মদ শীতলের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্কে গড়ে ওঠে। শীতলের বাড়ি জেলার কসবা উপজেলার নেমতাবাদে। গত দুই বছর ধরে সোনিয়া ও শীতলের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। সম্প্রতি শীতল জানতে পারেন সোনিয়ার আরও একটি ছেলের সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে। এ সন্দেহ থেকে দুজনের মধ্যে মনোমালিন্য চলছিল।

রোববার সন্ধ্যায় তারা জেলা শহরের দাতিয়ারার ফারুকী পার্কে দেখা করেন। এ সময় সোনিয়ার সঙ্গে আরও একটি ছেলের সম্পর্কের বিষয়ে দুজনের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে সোনিয়াকে থাপ্পড় দেন শীতল। এরপর সোনিয়া তার হাসপাতালে গিয়ে চালে দেওয়ার কেড়ির ওষুধ খেয়ে আ`ত্মহ`ত্যা করেন। এ ঘটনায় প্রেমিক শীতলকে আটক করেছে পুলিশ।

Check Also

শাড়ির সঙ্গে মেহন্দিতে আঁকা ব্লাউজ, ভিডিও ভাইরাল

সাধারণত শাড়ি সব জায়গায় উপযুক্ত পোশাক হিসেবে বিবেচিত হয়। শাড়ি-ব্লাউজ দুটো মিলিয়েই সম্পূর্ণ হয়। ব্লাউজের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *