রিকশার সঙ্গে পুড়ে গেল স্বপ্নও

palo-logo
By using this site, you agree to our Privacy Policy.
OK
জেলা
রিকশার সঙ্গে পুড়ে গেল স্বপ্নও
আলতাফ হোসেন রহিদুল মিয়াপীরগঞ্জ, রংপুর থেকে
প্রকাশ: ২০ অক্টোবর ২০২১, ২২: ৫১
অ+
অ-
উত্তেজিত জনতার দেওয়া আগুনে বসতঘরের সঙ্গে পুড়েছে রিকশাভ্যান। এখনো সেখানে পড়ে আছে পুড়ে যাওয়া রিকশার অবকাঠামো। সেই রিকশার অবকাঠামো সরানোর চেষ্টা করছেন নন্দ রানী। বুধবার দুপুরে তোলা
উত্তেজিত জনতার দেওয়া আগুনে বসতঘরের সঙ্গে পুড়েছে রিকশাভ্যান। এখনো সেখানে পড়ে আছে পুড়ে যাওয়া রিকশার অবকাঠামো। সেই রিকশার অবকাঠামো সরানোর চেষ্টা করছেন নন্দ রানী। বুধবার দুপুরে তোলা ছবি: আলতাফ হোসেন
রংপুর নগরে ভাড়ায় রিকশা চালাতেন পীরগঞ্জ উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের মাঝিপাড়া গ্রামের বড়করিমপুর এলাকার পরিতোষ চন্দ্র রায় (৪০)। কিন্তু ইজিবাইকের দৌরাত্ম্যে পায়ে প্যাডেল মেরে চালানো সেই রিকশায় যাত্রীরা উঠতে চাইতেন না। এতে তাঁর আয় অনেক কম হতো। এরপরও দিনভর যা আয় হতো, তার অর্ধেক মালিককে দিয়ে বাকি টাকা নিয়ে ঘরে ফিরতেন তিনি।

সেই আয়ে অতি কষ্টে চলত পরিতোষের সংসারের খরচ ও দুই সন্তানের লেখাপড়া। তপ্ত রোদে পরিতোষ রিকশা চালাতেন আর স্বপ্ন দেখতেন; কবে নিজের একটি রিকশাভ্যান হবে। তাঁর সেই স্বপ্ন ১৫ দিন আগে পূরণ করেছিলেন স্ত্রী নন্দ রানী। বেসরকারি এনজিও গার্ক থেকে সাপ্তাহিক কিস্তিতে ৫০ হাজার টাকা ঋণ নিয়ে স্বামীকে একটি চকচকে ব্যাটারিচালিত নতুন রিকশাভ্যান কিনে দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু দুর্বৃত্তদের দেওয়া আগুনে সেই রিকশা পুড়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পুড়ে গেছে স্বপ্নও।

বিজ্ঞাপন
পরিতোষ বলেন, ‘ধর্ম অবমাননার অভিযোগে গত রোববার রাতে উত্তেজিত জনতা হিন্দু গ্রামে হামলা, লুটপাট ও আগুন লাগিয়ে দিলে অন্যদের মতো আমার বাড়িঘর ও রিকশাভ্যানটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ৪১ হাজার টাকায় কেনা রিকশাভ্যানটি মাত্র ১০ দিন চালিয়েছি। ১ হাজার ৩৫০ টাকার দুটি কিস্তিও দিয়েছি। এতে ভালোই চলছিল দিন। কিন্তু গত রোববার সবকিছু এলোমেলো হয়ে গেছে। আগুনে সব হারিয়েছি।’

পরিতোষের স্ত্রী নন্দ রানী বলেন, ‘কপালে সুখ সইলো না। স্বামীর স্বপ্ন পূরণে ঋণ নিয়ে রিকশাভ্যান কিনে দিয়েছিলাম। এখন ভ্যান না থাকলেও ঋণের বোঝা মাথার ওপরে আছে। তা পরিশোধ করতে হবে। ওরা (উত্তেজিত জনতা) আমার সাজানো–গোছানো ঘরদোর, সংসার আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছে। স্বামী, শিশু দুই সন্তান নিয়ে এখন আমার কী হবে? কোথায় পাব টাকা? ঋণ পরিশোধ বা প্রতি সপ্তাহে কিস্তি দিব কীভাবে? এর চাইতে মরণটায় ভালো ছিল।’

Check Also

অস্ট্রেলিয়ায় ওমিক্রনের কমিউনিটি ট্রান্সমিশন হচ্ছে

অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বড় শহর সিডনিতে মহামারি করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের কমিউনিটি ট্রান্সমিশন ঘটছে। ইতিমধ্যে পাঁচ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *