‘খরচ ছাড়া’ কাজ করেন না চেয়ারম্যান পারভিন

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার লামচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহেনারা পারভিনের বিরুদ্ধে টাকার বিনিময়ে সরকারি ঘর ও মাতৃত্বকালীন ভাতা দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। দেড় বছর পরিষদের সদস্যদেরকে (মেম্বার) মাসিক সম্মানি দেওয়া হচ্ছে না। তাদের অভিযোগ, চেয়ারম্যান নিজের সম্মানি ঠিকই নিয়মিত উত্তোলন করছেন।

সরজমিনে গিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের দুইজন সদস্য ও ভূক্তভোগী ৯ জনের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে। সম্প্রতি তারা উপজেলা প্রশাসন ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) হটলাইনে অভিযোগ করেছেন।সংশ্লিষ্টরা জানায়, চেয়ারম্যান মাহেনারা পারভিন সরকারি বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা দেওয়ার কথা বলে সেবা প্রত্যাশিদের কাছ থেকে ‘খরচাপাতির’ নামে টাকা আদায় করছেন। বিধবা-বয়স্ক ও মাতৃত্বকালীন ভাতা, বিনামূল্যের সরকারি ঘর দিতে সুবিধা ভোগীদের কাছ থেকে বিভিন্ন অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। পরিষদের সদস্যদের সঙ্গে তার সমন্বয় নেই। কোন কাজেই সদস্যদের

সঙ্গে যোগাযোগ করেন না। ছেলেদের সঙ্গে নিয়েই মনগড়াভাবেই তিনি পরিষদ চালাচ্ছেন। গেল বছর এ ইউনিয়নে ১০ টাকা মূল্যে চালের ৭০৫টি কার্ড বরাদ্দ হয়। সদস্যদের না জানিয়েই চেয়ারম্যান ১৯১টি কার্ড বাতিল করে দেন। বাকি কার্ডগুলো তিনি ৫০০ থেকে ১৫০০ টাকা পর্যন্ত করে নিয়ে অনুমোদন দেয়। বাতিল হওয়া কার্ডগুলোর সুবিধাভোগীরা এনিয়ে তখন ক্ষুদ্ধ হয়ে উঠে।

Check Also

আবরারের পরিবারকে ১২ বছর মাসিক ৭৫ হাজার টাকা দেবে বুয়েট!

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) আগামী ১২ বছরের জন্য নিহত বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *