উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে কমপক্ষে ৪ জন নিহত

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে হিন্দুদের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান, মন্দির ও পূজামণ্ডপে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন এ ঘটনায় হওয়া মামলার গ্রেপ্তার আবদুর রহিম নামের এক আসামি। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তিনি জবানবন্দি দেন। নোয়াখালীর পুলিশ সুপার শহীদুল ইসলাম প্রথম আলোকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
পুলিশ সুপারের কার্যালয় সূত্র জানায়, বুধবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার করিমপুর এলাকা থেকে আবদুর রহিম ওরফে সুজনকে (১৯) গ্রেপ্তার করা হয়। আবদুর রহিমের বাড়ি করিমপুর এলাকায়। গত শুক্রবার চৌমুহনীতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা চলাকালে ধারণ করা ভিডিও ফুটেজ দেখে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ বলছে, গ্রেপ্তারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আবদুর রহিম শুক্রবার বেগমগঞ্জের চৌমুহনী বাজারে হিন্দুদের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও মন্দিরে হামলা, ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন। স্বীকারোক্তি অনুযায়ী তাঁর বসতঘরে তল্লাশি চালিয়ে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান থেকে লুটে নেওয়া ছয়টি লাক্স সাবান, ছয়টি টুথপেস্ট, একটি দুধের প্যাকেট, শ্যাম্পুর ১৩টি বোতল, চারটি ডিটারজেন্ট পাউডারসহ বিভিন্ন পণ্য উদ্ধার করা হয়।

Check Also

শাড়ির সঙ্গে মেহন্দিতে আঁকা ব্লাউজ, ভিডিও ভাইরাল

সাধারণত শাড়ি সব জায়গায় উপযুক্ত পোশাক হিসেবে বিবেচিত হয়। শাড়ি-ব্লাউজ দুটো মিলিয়েই সম্পূর্ণ হয়। ব্লাউজের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *