দুই শিক্ষার্থীকে হলে তুলে দিলেন শিক্ষক, নামিয়ে সিট দখল ছাত্রলীগের

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী হলের দুই আবাসিক শিক্ষার্থীকে হল থেকে নামিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে। ওই দুই শিক্ষার্থীকে আবাসিক হলে তুলে দিয়েছিলেন ওই হলের এক আবাসিক শিক্ষক।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের একজন বলেন, তাঁর আর্থিক অবস্থা ভালো নয়। তিনি ২০১৮ সালের নভেম্বরে হলের আবাসিকতা পেয়ে হলে উঠেছিলেন। কিন্তু সে সময়েও তাঁকে হল থেকে নামিয়ে দেওয়া হয়েছিল। এবার করোনার পর হল খোলার দিন সকালে তাঁকে আবাসিক শিক্ষক তানজিল ভূঞা ৪৭৫ নম্বর কক্ষে তুলে দেন। সেদিন ওই হলের কিছু রাজনৈতিক নেতা-কর্মী এসে তাঁকে হুমকি দিয়ে বলেন, এখানে থাকা যাবে না। তাঁদের ছেলেপেলে আছে। বিষয়টি স্যারকে জানালে তিনি অভয় দিয়ে থাকতে বলেন।

বিজ্ঞাপন
পরের দিন ওই ছাত্র কোনো একটি কাজে বাইরে গিয়েছিলেন। পরে হলে ফিরে এসে দেখেন তাঁর সবকিছু রুম থেকে বের করে দিয়ে নতুন একটি তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। পরে সেখানে তাঁদের কয়েকজনের সঙ্গে তাঁর কথা–কাটাকাটি হয়। এরপর ওই কক্ষ থেকে তিনি চলে আসেন।

একই ঘটনার শিকার আরেক ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী বলেন, তাঁর পারিবারিক অবস্থা ভালো নয়। তাই বাইরে থাকাটা কষ্টকর ছিল। বিষয়টি আবাসিক শিক্ষক তানজিল ভূঞাকে বললে তিনি আবেদন করতে বলেন। পরে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি হলে ওঠার অনুমতি পান এবং ওই শিক্ষকই তাঁকে ১৫৬ নম্বর কক্ষে তুলে দেন। কিন্তু এরপর তিনি এক দিনও ওই কক্ষে থাকতে পারেননি। তাঁর বেডিংপত্রসহ জিনিসপত্র দুই দফা বাইরে ফেলে দেওয়া হয়। পরে অন্য আরেকটি কক্ষে তিনি থাকছেন।

Check Also

আবরারের পরিবারকে ১২ বছর মাসিক ৭৫ হাজার টাকা দেবে বুয়েট!

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) আগামী ১২ বছরের জন্য নিহত বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *