জয়ের কাছে গিয়েও হার বাংলাদেশের

শারজার উইকেটে ১৪২ রান তাড়া করাটা খুব সহজ ছিল না। কিন্তু অসম্ভবও ছিল না। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলিং আক্রমণ রান তাড়াটা কঠিনই করে তুলল বাংলাদেশের জন্য। গ্যালারিভর্তি দর্শকের সমর্থনও অনুপ্রেরণা, ক্যারিবীয়দের বাজে ফিল্ডিং, বাজে বোলিংও অনুপ্রেরণা হতে পারেনি মাহমুদউল্লাহদের জন্য। জয়ের খুব কাছে পৌঁছেও লক্ষ্য থেকে দূরে বাংলাদেশ। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে টানা তৃতীয় ম্যাচে হেরে বিদায় বাংলাদেশ। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে হারটা ৩ রানের।

মুশফিকের ‘স্কুপ’ আবারও ডোবাল
মুশফিকের ‘স্কুপ’ আবারও ডোবালছবি: এএফপি
বিজ্ঞাপন
হিসাব না মেলাতে পারার ব্যর্থতাতেই এ হার। লিটন দাস ৪৩ বলে ৪৪ রানে করে ফর্মে ফিরেছিলেন। মাহমুদউল্লাহ করলেন ২৪ বলে ৩১। ম্যাচের পেন্ডুলাম হেলেছে দুই দলের দিকেই। একবার মনে হয়েছে বাংলাদেশ জিতবে, পরক্ষণেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। লিটন আর মাহমুদউল্লাহ যখন ব্যাটিং করছিলেন তখন মনে হয়েছে এ দুজন শেষ পর্যন্ত টিকে গেলেই বাংলাদেশ ম্যাচটা বের করে নেবে। কিন্তু লিটন এমন একটা সময় আউট হলেন, যখন তাঁকেই বড় বেশি প্রয়োজন ছিল বাংলাদেশের। ১৯তম ওভারে শেষ বলে লিটন যখন ফেরেন, তখন বাংলাদেশের প্রয়োজন আরও ১৩ রান। লিটন ডোয়াইন ব্রাভোর বলে উড়িয়েই মারলেন। কিন্তু দীর্ঘদেহী জেসন হোল্ডার অনায়াসেই নিয়ে নিলেন ক্যাচটা। হোল্ডারের জায়গায় অন্য যেকোনো ফিল্ডার থাকলেই লিটনের শটটা ছক্কা হয়ে যায়। আর সেটি হয়ে গেলেই তো ম্যাচ বাংলাদেশের।

লিটনের ফেরায় যে ছন্দপতন, সেটি আর কাটিয়ে উঠতে পারেননি বাংলাদেশ। মাহমুদউল্লাহর স্কিল হিটিং আর ওই মুহূর্তে কাজে লাগেনি। শেষ ওভারে আন্দ্রে রাসেল তাঁর টি-টোয়েন্টির যাবতীয় অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে মাহমুদউল্লাহ আর আফিফ হোসেনকে লক্ষ্যমাত্রা থেকে দূরেই রাখলেন।

Check Also

আবরারের পরিবারকে ১২ বছর মাসিক ৭৫ হাজার টাকা দেবে বুয়েট!

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) আগামী ১২ বছরের জন্য নিহত বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *