ছাত্রীর দিকে কুনজর, স্কুল ছুটি হতেই হিংস্র রূপ নেন প্রধান শিক্ষক

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় স্কুলছাত্রীকে কুপ্রস্তাব দেওয়ার অভিযোগে এক শিক্ষককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। একই সঙ্গে তাকে বিদ্যালয় থেকে প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে। শনিবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার অরুণ কুমার ঢালী।
অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম গুরুদাস মিস্ত্রি। তিনি উপজেলার ২২ নম্বর শৌলদহ মুশুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও উপজেলার রামশীল ইউনিয়নের মুশুশিয়া গ্রামের ভদ্রকান্ত মিস্ত্রির ছেলে।

জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে শৌলদহ মুশুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করছিলেন প্রধান শিক্ষক গুরুদাস মিস্ত্রি। এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার ওই ছাত্রীকে ছুটির পরে বিদ্যালয়ে থাকতে বলেন তিনি। এরপর সবাই চলে গেলে তিনি ওই ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন। এ সময় দৌড়ে বাড়িতে গিয়ে বিষয়টি মাকে জানান ওই ছাত্রী।

এ ঘটনার পরদিন শুক্রবার হওয়ায় শনিবার এলাকার নারীদের নিয়ে বিদ্যালয়ে গিয়ে শিক্ষক গুরুদাসকে লাইব্রেরিতে অবরুদ্ধ করে রাখেন ভুক্তভোগী ছাত্রীর মা। পরে ঘটনাস্থলে যান কোটালীপাড়া থানা পুলিশ ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা অরুণ কুমার ঢালী। তারা গুরুদাসকে উদ্ধার করেন।

Check Also

শাড়ির সঙ্গে মেহন্দিতে আঁকা ব্লাউজ, ভিডিও ভাইরাল

সাধারণত শাড়ি সব জায়গায় উপযুক্ত পোশাক হিসেবে বিবেচিত হয়। শাড়ি-ব্লাউজ দুটো মিলিয়েই সম্পূর্ণ হয়। ব্লাউজের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *