পুলিশ হেফাজতে থাকা যুবকের হ্যান্ডকাফ পরা মরদেহ উদ্ধার

নরসিংদীতে পুলিশ হেফাজতে সুজন সাহা নামে এক যুবকের মৃ`ত্যুর অভিযোগ উঠেছে। হ্যা`ন্ডকাফ পরা অবস্থায় হাড়িদোয়া নদী থেকে তার মর`দেহ উদ্ধার করা হয়।মঙ্গলবার সকালে শহরের হাজিপুরে এ ঘটনা ঘটে। নিহত সুজন সাহা (২২) হাজিপুর দাসপাড়া এলাকার অজিত সাহার ছেলে। তিনি শেকেরচরে একটি কাপড়ের দোকানে কাজ করতেন।নি`হতের স্বজনদের দাবি, গ্রে`ফতারের পর পু`লিশ তাকে বেদম মা`রধ`র করে।

এতে তার মৃ`ত্যু হলে হ্যান্ডকাফ পরা অবস্থায় তাকে নদীতে ফেলে দেয়।নিহতের বাবা আজিত সাহা বলেন, সোমবার রাতে পু`লিশ সুজনকে খুঁজতে তার বাসায় যায়। তখন গেট খুলতে না চাইলে পুলিশ গেটের তালা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে তল্লাশি চালায়। পরে তাকে ফোন দিয়ে পুলিশের সঙ্গে দেখা করতে বলে। পরে সকালে ব্রাহ্মন্দী থেকে তাকে ধরে হাজীপুর বাবুলের চানাচুর ফ্যাক্ট্ররিতে নিয়ে আসে পুলিশ। সেখানে তাকে এলোপাথাড়ি পি`টিয়ে হ`ত্যার পর তাকে নদীতে ফেলে দেয়।

পরে হাজিপুরের হাড়িদোয়া নদীতে জাল ফেলে তাকে উদ্ধার করা হয়।তবে পু`লিশ বলছে, সুজনকে গ্রে`ফতারের পর থানায় নেওয়ার সময় সে হ্যান্ডকাফ পরা অবস্থায় পুলিশের ওপর হা`মলা করে পালিয়ে যেতে নদীতে ঝাঁপ দেয়।পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সুজনের বি`রুদ্ধে একাধিক ওয়ারেন্ট রয়েছে। সেই ওয়ারেন্ট তামিল করতে তাকে হাজিপুরের চানাচুর ফ্যাক্টরি থেকে গ্রে`ফতার করা হয়। সেখান থেকে সুজনকে থানায় নেওয়ার পথে তিনি অতর্কিত পুলিশের ওপর হা`মলা চালান।

ওই সময় তার কাছে থাকা ছুরি দিয়ে দুই পুলিশ সদস্যকে উপর্যপুরি ছুরিকাঘাত করেন। এতে দুই পুলিশ সদস্য আহত হন।নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) সাহেব আলী পাঠান বলেন, সুজন একজন পেশাদার অপরাধী। তার বিরুদ্ধে চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, মারামারিসহ ১০টি মামলা রয়েছে।

Check Also

আবরারের পরিবারকে ১২ বছর মাসিক ৭৫ হাজার টাকা দেবে বুয়েট!

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) আগামী ১২ বছরের জন্য নিহত বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *