মর্গে ৯৯ মরদেহকে যৌন নির্যাতনের প্রমাণ মিললো খুনির বাসায়

দুটি খুনের মামলায় ৬৭ বছর বয়সী সাবেক এক হাসপাতাল কর্মীর বাসায় তল্লাশি করতে গিয়ে বেরিয়ে আসে গা হিম করা তথ্য। ১৯৮৭ সালে দুই নারী ও শিশুকে খুনের মামলায় গত বৃহস্পতিবার দোষ স্বীকার করেছেন ওই ব্রিটিশ।
ব্রিটিশ সম্প্রচার মাধ্যম স্কাই নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ডেভিড ফুলার (৬৭) নামে ওই ব্যক্তির বাড়িতে তল্লাশি করতে গিয়ে গোয়েন্দারা বেশ কিছু কম্পিউটার হার্ডড্রাইভ, সিডি এবং মেমোরি কার্ড উদ্ধার করেন। সেসব ভয়ানক যৌন নির্যাতনের ভিডিও ও ছবিতে ভরা।

ওয়েন্ডি নেল এবং ক্যারোলিন পিয়ার্স নামে দুজনকে তিনি হত্যা করেন। এর মধ্যে একজন ১২ বছরের শিশু। সেই মামলাতেই তাঁর বিচার চলছে।

ফুলার কাজ করতেন ইংল্যান্ডের কেন্টে একটি হাসপাতালে। তাঁর বাড়ি থেকে উদ্ধার হার্ডড্রাইভ, সিডি এবং মেমোরি কার্ড থেকে ১ কোটি ৪০ লাখের বেশি ছবি উদ্ধার করা হয়েছে। সেসবে রয়েছে শিশু পর্নোগ্রাফি থেকে শুরু করে বহু বীভৎস সব ছবি। হাসপাতালের মর্গে মৃতদেহের ওপর যৌন নির্যাতনের ভিডিও ফুটেজও পাওয়া গেছে।

Check Also

অস্ট্রেলিয়ায় ওমিক্রনের কমিউনিটি ট্রান্সমিশন হচ্ছে

অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বড় শহর সিডনিতে মহামারি করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের কমিউনিটি ট্রান্সমিশন ঘটছে। ইতিমধ্যে পাঁচ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *