বাদ পড়ার পরদিনই মুখ খুললেন ব্যাটাসম্যান মুশফিক

বিশ্বকাপে খারাপ পারফর্ম্যান্সের পর পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে বাদ পড়েছেন দেশের অন্যতম সেরা ব্যাটাসম্যান মুশফিকুর রহিম। গত মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) বিকালে স্কোয়াডে ঘোষণা করে মুশফিক ছাড়াও টিমে নেই সৌম্য সরকার, লিটন দাস। নির্বাচকরা বলেছেন, টেস্টের কথা ভেবে পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে রাখা হয়নি মুশফিকুর রহিমকে। তিনি নিজেও নাকি বিশ্রাম চেয়েছিলেন। তবে গতকাল মুশফিক জানিয়েছেন, এর কোনোটাই নয়, বাদ পড়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘ক্রিকেটার হিসেবে উত্থান-পতন থাকবেই ক্যারিয়ারে। আর এটাই তো প্রথমবার নয়। হ্যাঁ, অনেক দিন পর বাদ পড়লাম। আমার কাছে স্বাভাবিকই মনে হয়েছে। বিশ্বকাপে নিজের কাছে আমার যে প্রত্যাশা ছিল, সে অনুযায়ী খেলতে পারিনি। এই কারণেই যদি বাদ দিয়ে থাকে, ক্রিকেটার হিসেবে আমি ভালোভাবেই নিচ্ছি।

দিনশেষে আমি বিশ্বাস করি, আল্লাহ যা করেন, ভালোর জন্যই করেন।’নির্বাচকরা নাকি মুশফিকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে সংকোচ বোধ করেন। এ ব্যাপারে মুশফিক জানান, ‘আমি কি খাঁচার বাঘ যে আমাকে ছেড়ে দিয়েছে, এখন আমি তাঁদের বা অন্যদের খেয়ে ফেলব ? আমার অভিষেক হয়েছে সুমন ভাইয়ের (নির্বাচক ও সাবেক অধিনায়ক হাবিবুল বাশার) অধিনায়কত্বে।

এখন উনি যদি বলতে না পারেন ছোট ভাইকে কোনো কথা… শুধু উনি কেন, আকরাম ভাই, নান্নু ভাই, উনারা বিকেএসপিতে খেলতে গিয়েছিলেন, আমরা বল থ্রো করেছিলাম, তখন আমাদের জন্য স্বপ্ন সত্যি হওয়ার মতো ব্যাপার ছিল। এখন তাঁদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে পারছি। এখানে যদি ওনারা কথা বলতে না পারেন আমার সঙ্গে… আমি তো সব সময়ই ওয়েলকাম করি। কিছু ক্রিকেটার আছে, যাদের অন্যভাবে বলতে হয়। সেটা তো তাদের জানতে হবে।

আমারও বুঝতে হবে।’ বিশ্রামের বিষয়ে মুশফিক সাফ জানিয়েছেন, এখনো তার ওই পর্যায়ে যাওয়ার সময় আসেনি। আক্ষেপ নিয়ে মুশফিক জানান, ‘আমি মুখিয়ে ছিলাম, এই তিনটি টি-টোয়েন্টিতে সুযোগ পেলে চেষ্টা করতাম বিশ্বকাপে করা ভুল শুধরে নেওয়ার এবং ভালো করার। বিশ্বকাপের আগে ঘরের মাঠে বাংলাদেশ যে দুটি সিরিজ জিতেছে, সেই মোমেন্টাম যেন আবার ফিরিয়ে আনতে পারি। দুর্ভাগ্যজনকভাবে সেটি হয়নি। তবে দলের সবার জন্য শুভ কামনা।’

Check Also

অস্ট্রেলিয়ায় ওমিক্রনের কমিউনিটি ট্রান্সমিশন হচ্ছে

অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বড় শহর সিডনিতে মহামারি করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের কমিউনিটি ট্রান্সমিশন ঘটছে। ইতিমধ্যে পাঁচ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *