রাতে ঘরে ঢুকেন ইতালি প্রবাসী, খু`ন করে থানায় গৃহবধূ

কিশোরগঞ্জে এক ইতালি প্রবাসীকে খু`ন করেছেন তাসলিমা আক্তার (২৫) নামের এক গৃহবধূ। মো. আমিনুল আলম (৪৫) নামের ওই ইতালি প্রবাসীকে মেরে নিজের ভাড়া বাসায় তালাবন্দি অবস্থায় ফেলে রেখে থানায় আত্মসমর্পণ করেন ওই গৃহবধূ। পরে সংকটাপন্ন ওই প্রবাসীকে পু`লিশ উ`দ্ধার করে হাসপাতালে পাঠালে কয়েক ঘণ্টা পর তার মৃ`ত্যু হয়। গত শুক্রবার দিবাগত রাত পৌনে ১১টার দিকে কিশোরগঞ্জ জেলা শহরের নীলগঞ্জ রোডের শোলাকিয়া সেবাশ্রম সং`লগ্ন প্রফেসর খায়রুল আলম সবুজের বাসায় এই ঘটনা ঘটে।

নি`হত মো. আমিনুল আলম নীলগঞ্জ রোডের শোলাকিয়া সেবাশ্রম এলাকার মৃ`ত আব্দুছ ছামাদের ছেলে। তিনি ২ মাস ৪ দিন আগে ছুটিতে ইতালি থেকে দেশে ফেরেন। আগামী ২রা জানুয়ারি তার ইতালি পাড়ি দেয়ার কথা ছিল। অন্যদিকে গৃহবধূ তাসলিমা আক্তার জেলার হোসেনপুর উপজেলার সাহেবেরচর গ্রামের নাজমুল আলমের স্ত্রী। মো. নাজমুল আলম কিশোরগঞ্জ সদরে গ্রামীণ ব্যাংকে কর্মরত থাকায় স্ত্রী তাসলিমা আক্তার ও দুই সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে জেলা শহরের নীলগঞ্জ রোডের শোলাকিয়া সেবাশ্রম সংলগ্ন প্রভাষক মো. খায়রুল কবীর ভূঞা সবুজের বাসায় ভাড়া থাকেন। এদিকে, এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গৃহবধূ তাসলিমা আক্তারের স্বামী মো. নাজমুল আলমকে পু`লিশ আ`টক করেছে।

পুলিশ জানায়, গত শুক্রবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে গৃহবধূ তাসলিমা আক্তার কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানায় এসে ডিউটি অফিসারকে জানান, ইতালি প্রবাসী মো. আমিনুল আলমের বাসায় তারা ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করতেন। বাসার মালিক আমিনুল আলমের চরিত্র ভালো না থাকায় সে বাসা ছেড়ে প্রায় আড়াই বছর ধরে একই এলাকায় প্রভাষক মো. খায়রুল কবীর ভূঞা সবুজের বাসায় ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করছেন। পূর্বের ভাড়া বাসার মালিক হিসেবে পরিচয়ের সূত্র ধরে আমিনুল আলম গৃহবধূ তাসলিমাকে বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনে কু`প্র`স্তাবসহ বিভিন্ন ধরনের কথাবার্তা বলতো। তাসলিমা ও তার স্বামী নাজমুল আলম বিষয়টি আমিনুল আলমের স্ত্রীসহ আ`ত্মীয়-স্বজনকে জানালে আমিনুল আলম ক্ষি`প্ত হন।

Check Also

আবরারের পরিবারকে ১২ বছর মাসিক ৭৫ হাজার টাকা দেবে বুয়েট!

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) আগামী ১২ বছরের জন্য নিহত বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *