আফরোজা আব্বাসকে হোটেল থেকে বের করে দিয়েছে পুলিশ

জাতীয়তাবাদী মহিলা দল সভানেত্রী আফরোজা আব্বাসসহ দলীয় নেতাদের ফেনীর একটি আবাসিক হোটেল থেকে ঘুমন্ত অবস্থায় মধ্যরাতে ডেকে নিয়ে বের করে দেয়ার অভিযোগ করেছে বিএনপি। এছাড়া মহিলা দলের নির্ধারিত কর্মিসভায় নিষেধাজ্ঞা ও সভাস্থলে হামলা-ভাংচুর করেছে সরকারদলীয়রা।দলীয় সূত্রে জানা যায়, আফরোজা আব্বাস

ছাড়াও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সদস্য সচিব ও ফেনী-১ আসনের সাংগঠনিক সমন্বয়ক রফিকুল আলম মজনু, বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ-দফতর সম্পাদক বেলাল আহমেদ, সদস্য অ্যাডভোকেট শাহানা আক্তার শানু, হাবিবুর রশিদ হাবিব, কেন্দ্রীয় যুবদলের সহ-সভাপতি ইউসুফ বিন জলিল কালু, মোশাররফ হোসেন দিপ্তি, মোনায়েম

মুন্না, মাসুদ আহমেদ মিলন দলীয় কর্মসূচি পালনের উদ্দেশ্যে ফেনী সফরে আসেন। সোমবার ছাগলনাইয়া উপজেলার শুভপুর ইউনিয়নে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় বিশেষ দোয়া মাহফিলে অংশ নেন। পরে রাত্রি যাপনের জন্য ফেনী শহরের শহীদ শহীদুল্লা কায়সার সড়কস্থ হোটেল বেস্ট ইনে উঠেন।জেলা বিএনপির সদস্য সচিব আলাল উদ্দিন আলাল জানান, মহিলা দল ও বিএনপির নেতাদেরকে মধ্যরাতে পুলিশ ঘুম থেকে ডেকে হোটেল ত্যাগে বাধ্য করেন। এছাড়া

সরকারদলীয় সন্ত্রাসীরা অনুষ্ঠানস্থল ব্যতিক্রম কমিউনিটি সেন্টারও ভাংচুর করেছে বলে অভিযোগ করেন। এ ঘটনায় জেলা বিএনপির পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়। অবশ্য মঙ্গলবার বিকেলে রামপুরের একটি বাড়িতে মহিলা দলের কর্মিসভা অনুষ্ঠিত হয়।জানতে চাইলে ফেনী মডেল থানার ওসি নিজাম উদ্দিন জানান, হোটেল থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ সঠিক নয়। তিনি জানান, করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট সংক্রমণের আশংকায় সরকারের জারিকৃত নির্দেশনা মেনে তাদের সভা করতে বলা হয়েছে।

আফরোজা আব্বাসের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ফেনীতে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের কর্মী সমাবেশ মঙ্গলবার সকালে শহরের একটি বাড়িতে অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মহিলা দলের কেন্দ্রীয় সভানেত্রী আফরোজা আব্বাস।তিনি তার বক্তব্যে বলেন, ওরা আমাদের প্রোগ্রামের স্থান পরিবর্তন করিয়েছে, আমরা ওদের দেশ পরিবর্তন করাবো। তিনি পুলিশ ও সরকারদলীয়দের বাধার

বিষয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।সভায় জেলা মহিলা দল নেত্রী জুলেখা আক্তার ডেইজি, জান্নাতুল ফেরদৌস মিতা, জাহানারা আক্তার, বিএনপির আহ্বায়ক শেখ ফরিদ বাহার, যুগ্ম আহ্বায়ক এয়াকুব নবী, আলাউদ্দিন গঠন, আনোয়ার হোসেন পাটোয়ারী, জেলা যুবদলের সভাপতি জাকির হোসেন জসিম, সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন খন্দকার, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক এস এম কায়সার এলিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Check Also

আবরারের পরিবারকে ১২ বছর মাসিক ৭৫ হাজার টাকা দেবে বুয়েট!

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) আগামী ১২ বছরের জন্য নিহত বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *